এইমাএ পাওয়া

ব্যবসা করতে টাকা লাগে না, বুদ্ধি লাগে

জুন ২৭, ২০১৬

উদ্যোক্তা

টাকা ছাড়া আবার ব্যবসা হয় নাকি…! কিন্তু কথাটা মোটেও সত্য নয়। আমার কথা শুনে অবাক হয়ে হয়ত বলবেন পাগলের প্রলাপ বকছি আমি। কিন্তু আমি আপনাদের আজ সে রকম কিছু ব্যবসার সাথে পরিচয় করিয়ে দিব যা করতে প্রয়োজন হয় না টাকার। এমন অনেকই এ ধরনের ব্যবসা করছেন আপনার পাশেই। আর আপনি তাদের পাশেই অন্ধের মত চোখ বন্ধ করে ব্যবসা খুজছেন…

বর্তমান সময়ে এসে ব্যবসায়ের পরিধি ও ধরনেও এসেছে ব্যাপক পরিবর্তন। আর সেই সাথে সৃষ্টি হয়েছে নতুন নতুন কিছু সুযোগ। আর সেই সুযোগ গুলো ব্যবহার করতে জানলেই আপনি শুরু করতে পারবেন ব্যবসায়। তাও আবার বিনা পুঁজিতে। এক্ষত্রে বিনিয়োগ বলতে শুধুই আপনার যোগাযোগ আর মেধা। পরিচিতি ও বিশ্বাস যোগ্যতা বাড়াতে পারলেই আপনার ব্যবসায়ের পরিধি দিনকে দিন বাড়তেই থাকবে।

মধ্যস্থতাকারী শব্দটার সাথে সবাই কমবেশী পরিচিত। আমরা অনেকেই এদেরকে দাদাল বলে অবজ্ঞা করে থাকি কিংবা পরিচয় দিতে দ্বিধাবোধও করি। বড় ব্যবসায়ী হতে হলে দালাল হোন আগে… শিরোনামে একটি লেখা প্রকাশ করেছিলাম পেইজে। যারা লিখাটি পড়েননি দেখে নিতে পারেন। তাই আজ দালাল সম্পর্কিত বিস্তারিত কিছুই বলব না।

আপনার বাসার কাছের মাঠেই সবজি উৎপাদন হচ্ছে অথবা ফার্মে উৎপাদিত হচ্ছে ব্রয়লার মুরগী কিংবা ডিম। আর তা শহর থেকে বড় বড় পাইকাররা ক্রয় করে নিয়ে যাচ্ছে তাদের অস্থায়ী প্রতিনিধির মাধ্যমে। আপনি কেন পারছেন না তাদের প্রতিনিধির জায়গা দখল করতে। অথবা আপনার প্রতিবেশী সেই সল্পশিক্ষিত কৃষকটির ফসলের দায়িত্ব নিজের কাধে তুলে নিয়ে বিক্রয় করতে। যেখানে আপনাকে বিনিয়োগ করতে হবেনা কোন অর্থই। শুধু দুপক্ষের মধ্যে বিশ্বস্থতা অর্জন করে কাজ করতে হবে। সবজি দিয়ে উদাহরন দিলাম এমন অনেক কৃষি ও কৃষিজাত পন্য আছে যা থেকে আপনি আপনার ব্যবসায়ের যাত্রা শুরু করতে পারবেন অনায়াশেই। শুধু দরকার আপনার ইচ্ছাশক্তি আর কর্মপ্রচেষ্টা।

শহর এলাকায় বাসা পাল্টানো একটি নিত্য ব্যাপার। আর এই বাসা বদলের মাঝে লুকিয়ে আছে আপনার ব্যবসা। ভাবছেন কিভাবে? আপনি পরিচিতি বাড়ান এলাকায় আর যোগাযোগ করুন এমন কিছু লোকের সাথে যারা ছোট মিনি ট্রাক বা ট্রাক ভাড়া দিয়ে থাকে। আর কিছু লেবার শ্রেনীর দক্ষ লোকের সাথে যোগাযোগ রাখুন যারা বাসা পাল্টাতে আসবাবপত্র স্থানান্তরের কাজটি করবে। প্রচরণা চালান আর যারা বাসা বদলাবে তাদের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চুক্তিতে বাসা বদলের মধ্য দিয়ে যাত্রা শুরু হোক আপনার বিনা পুঁজির ব্যবসা।

ঠিক এভাবেই বাসা বাড়িতে অথবা অফিস কিংবা বিপনী বিতান গুলোতে বিশ্বস্থ নিরাপত্তা রক্ষী সরবরাহ করে শুরু করতে পারেন সিকিউরিটি সার্ভিসেস ব্যবসা। প্রতিমাসের বেতন থেকে একটি নির্দিষ্ট পরিমান আয় দিয়ে এগিয়ে যেতে পারবেন একটু পরিশ্রম করলেই। শুধু সিকিউরিটি নয় বর্তমানে হাসপাতাল থেকে শুরু করে বড় বড় মার্কেট ও অফিস গুলোতে ক্লিনারও সরবরাহ করতে পারবেন।

কিছু মেকানিকের সাথে পরিচয় করুন এবং ভাল সম্পর্ক গড়ে তুলুন। এরা মটর মেকানিক, সাটার মেকানিক, ইলেকট্রিক, ইলেকট্রনিক্স, থাই এল্যুমিনিয়াম মেকানিক, থেকে শুরু করে এসি কিংবা জেনারেটর সার্ভিসিং এর কাজে অভিজ্ঞতা আছে এমন। এবার শুরু হোক আপনার যাত্রা। বাসা বাড়ির কাজ সংগ্রহের জন্য সকলকে জানানো শুরু করুন। কাজ চুক্তিতে নিয়ে মেকানিকদের দিয়ে কাজ করিয়ে নিয়ে আপনি একটি নির্দিষ্ট অংকের মুনাফা হাতে রাখুন কাজের ওপর ভিত্তি করে।

এবার আসি আরও কিছু স্মার্ট ব্যবসা নিয়ে যা থেকে আপনি আয় করতে পারবেন। তবে এজন্য আপনাকে কাজ জানতে হবে। পরিচিতিও বাড়াতে হবে অনেক বেশী। সদ্যজাত কোন কোম্পানীর উৎপাদিত পন্য বিক্রয়ের দায়িত্ব নিয়েও শুরু করতে পারেন আপনার ব্যবসা। আমদানী রপ্তানী ব্যবসায়ের ক্ষেত্রে জাহাজ ভাড়া, বিমান ভাড়া, কন্টেইনার ভাড়া করে দিয়েও শুরু করতে পারেন। তাছাড়া জমি কিংবা ফ্ল্যাট বিক্রয় ব্যবসার মধ্যস্থতাকারী হিসেবে শুরু করতে পারেন আপনার ব্যবসা।

বর্তমানে কোচিং সেন্টার কিংবা ট্রেনিং সেন্টারের ব্যবসা এতটাই জমজমাট যে প্রতিযোগীতার সুযোগে ছাত্র সরবরাহ করার মধ্য দিয়েও তৈরী হয়েছে বিনা পুঁজির ব্যবসা। আর হাসপাতালের রোগী নিয়ে ব্যবসার কথা না হয় নাই বললাম। কারন আমি নিজেও মন থেকে চাই না কোন একটা রোগী ব্যবসার শিকার হোক।

উদ্যোক্তা হওয়ার স্বপ্ন যার চোখে দিনের আলোর মত জ্বলে সে শুন্য থেকেই এর যে কোন একটি ব্যবসা দিয়ে শুরু করে এগিয়ে যেতে পারবেন। আরও অনেক ব্যবসায় আছে যা কোন রকম প্রাথমিক বিনিয়োগ ছাড়াই করা সম্ভব। যারা টাকা নাই বলে শুরু করতে পারছেন না বলে কারন দর্শান তাদের জন্য নেটিশ একটাই চোখ থেকে টিনের চশমা টা খুলুন আর যা আছে তা নিয়েই শুরু করুন যা নেই তা নিয়ে চিন্তা করার দরকার কি…

লিখেছেনঃ Masudur Rahman