এইমাএ পাওয়া

গান গাইলেন স্বস্তিকা

মে ৪, ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিনিয়োগ বার্তা:

এই প্রথম গান গাইলেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। গানটি ‘আমার মুক্তি আলোয় আলোয়’ অ্যালবামে প্রকাশ পেয়েছে। এটি রবীন্দ্র সংগীতের অ্যালবাম। স্বস্তিকার সঙ্গে এতে গেয়েছেন তার বাবারও। আজ বৃহস্পতিবার কলকাতায় অ্যালবামটি প্রকাশ হয়েছে।

ভোরবেলায় রবীন্দ্রসঙ্গীত শোনাটা ছিল স্বস্তিকার বাড়ির নিয়ম। তার মা তানপুরা, হারমোনিয়াম বাজাতেন পটু হাতে। বাবা এস্রাজে দক্ষ। কিন্তু মেয়ের গানে কোনও দিনই তেমন ঝোঁক ছিল না। বোন শিখত গান। কিন্তু এই মেয়ে বরাবর নাচকে আপন করেছে। হ্যাঁ, গান শুনতে যে ভাল লাগত না, তা নয়। তবে গান গাওয়ার কথা সে ভাবেনি কোনও দিনই। নাচের পাশাপাশি এক সময়ে এল অভিনয়ের ডাক। ক্রমে অভিনেত্রী হিসেবেই দর্শকদের কাছে পরিচিতি পেলেন তিনি। কিন্তু গান তো কোথাও প্রাণের আরাম। তাই অভিনয়ের দীর্ঘ কেরিয়ার পেরিয়ে নতুন পথে হাঁটলেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়।

স্বস্তিকা বলেন, ‘সুমনের থিয়েটারে খালি গলায় গান গেয়েছিলাম। সেটাই রেকর্ড করে সত্রাজিত্রকে পাঠাই। ও মিউজিক অ্যারেঞ্জ করে সেই গানটা যখন ফের আমাকে দেয়, তখন মনে হয়েছিল রিস্কটা নেওয়া যায়। ওর কোম্পানি থেকেই অ্যালবামটা রিলিজ হচ্ছে।

বাবাকে সঙ্গে নিয়ে অ্যালবামের ভাবনা কী ভাবে এল? এমন প্রশ্নের জবাবে স্বস্তিকা বলেন, ‘আমার কাছে বাবার কাজের কোনও আর্কাইভ নেই। ছোট থেকেই বহু বার শুনেছি বাবার অ্যালবাম করার খুব ইচ্ছে ছিল। নানা কারণে হয়ে ওঠেনি। তাই বাবাকে নিয়েই কাজটা করব ঠিক করেছিলাম। কিন্তু বাবাকে রাজি করানোটা বেশ কঠিন ছিল। বাবা খালি বলত, কী দরকার এসবের? বয়স হয়েছে। গানের গলাটা খারাপ হয়ে গিয়েছে। তারপর আমি রীতিমতো ইমোশনাল ব্ল্যাকমেল করে রাজি করিয়েছি।

অ্যালবামে থাকছে মোট ছয়টি গান। স্বস্তিকার গলায় তিনটি। সন্তু গেয়েছেন দু’টি। একটি গানে যৌথ ভাবে গলা মিলিয়েছেন বাবা-মেয়ে। শুট করা হয়েছে একটি মিউজিক ভিডিও।

স্বস্তিকা বললেন, ‘খুব পছন্দের গানগুলো গেয়েছি আমি। বাবা মূলত পূজা পর্যায়ের গান গেয়েছেন।’

বিনিয়োগ বার্তা/এমআর