এইমাএ পাওয়া

আর্থিকভাবে সক্ষমতায় সজাগ হতে হবে: মাজেদুর রহমান

জুলাই ২৫, ২০১৬

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাজেদুর রহমান

নিজস্ব প্রতিবেদক, বিনিয়োগবার্তা: ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাজেদুর রহমান বলেছেন, প্রতিটি বিনিয়োগে ঝুঁকি থাকে। তবে বিনিয়োগে ক্ষতি যাতে না হয় সেজন্য বিভিন্ন বিষয় বিশ্লেষন করা প্রয়োজন।বিনিয়োগ সঠিক হওয়ার পরও সেনসেটিভিটি অ্যানালাইসিস করা প্রয়োজন। তারপরও যদি কোন বিপত্তি ঘটে তবে এর ফলে যতটুকু ক্ষতি হতে পারে সেটুকু পুষিয়ে নেয়ার মত আর্থিক সক্ষমতা আছে কিনা এই সব বিষয়ে সজাগ হতে হবে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের ট্রেনিং একাডেমীতে ডিএসইর সদস্য ব্রোকারেজ হাউস প্রতিনিধিদের জন্য আয়োজিত বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জে কমিশনের (বিএসইসি) ফিনান্সিয়্যাল লিটারেসি প্রোগ্রামে তিনি এসব কথা বলেন। রোববার (২৪ জুলাই) দুদিন ব্যাপি প্রোগ্রামটি শুরু হয়েছে বলে সোমবার (২৫ জুলাই) ডিএসইর উপ মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ ও প্রকশনা)মো. শফিকুর রহমান পাঠানো এক বার্তায় এসব কথা জানানো হয়েছে।
ডিএসইর এমডি বলেন, দেশব্যাপী ফিনান্সিয়াল লিটারেসি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ডিএসই বিএসইসির সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে এই কার্যক্রমটি সারা দেশে পরিচালনা করার জন্য কাজ করছে। বিনিয়োগকারীদের সচেতনভাবে বিনিয়োগ করার জন্য এই কার্যক্রমটি অত্যন্ত প্রয়োজন।

মাজেদুর বলেন, ফাইন্যান্সিয়াল লিটারেসির মাধ্যমে সবার মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি হবে, যার মাধ্যমে পুঁজিবাজার টেকসই, প্রাণবন্ত এবং লাভজনক বাজার হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হবে।

ডিএসই’র প্রধান অর্থ কর্মকর্তা বলেন, ডিএসই’র ডিমিউচ্যুয়ালাইজেশনের একটি উদ্দেশ্য হলো জ্ঞানের পরিধি বৃদ্ধি করা। আর এ লক্ষ্যে বিএসইসি ফিন্যান্সিয়্যাল লিটারেসি কার্যক্রমটি সেচ্ছায় পরিচালনা করছে। এজন্য তারা ১০ বছর মেয়াদী একটি পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট সকলে যদি এই কার্যক্রমটি সফল করতে সহায়তা করে তবে এটি আরও ত্বরান্বিত হবে। যার মাধ্যমে একটি সমৃদ্ধ পুঁজিবাজার গড়ে উঠবে।

ফিন্যান্সিয়্যাল লিটারেসি বিষয়ে বিভিন্ন ব্রোকারেজ হাউস প্রতিনিধিদের প্রশিক্ষণ প্রদান করেন বিএসইসি’র নির্বাহী পরিচালক মোঃ মাহবুবুল আলম। এসময় ডিএসইর ট্রেনিং একাডেমীর ইনচার্জ ও উপ-মহাব্যবস্থাপক হোসনে আরা পারভিন উপস্থিত ছিলেন ।
বিনিয়োগবার্তা/রাসেল